• মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ১১:১০ অপরাহ্ন

নিয়োগকর্তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা বিদেশি শ্রমিকদের চাকরি দিতে ব্যর্থ

Reporter Name / ৩৮ Time View
Update : বুধবার, ১১ অক্টোবর, ২০২৩

মালয়েশিয়ায় বিদেশি শ্রমিকদের চাকরি দিতে ব্যর্থ নিয়োগকর্তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানিয়েছেন দেশটির মানব সম্পদমন্ত্রী ভি শিবকুমার। মন্ত্রী বলেছেন, যারা বিদেশি কর্মীদের (নিয়োগকর্তা) নিয়ে আসে। অনেকে তাদের কর্মী সামলানোর চেয়ে বেশি কর্মী নিয়ে আসছেন; কিন্তু তারা চাকরি দিতে ব্যর্থ হয়। এমন নিয়োগকর্তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানাচ্ছি।

৩০ সেপ্টেম্বর পেনাংয়ের পেরাই শিল্প এস্টেটে ভি শিবকুমার সাংবাদিকদের বলেন, বিদেশি শ্রমিকদের চাকরি দিতে ব্যর্থ নিয়োগকর্তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত এবং তাদের অবশ্যই আদালতে টেনে আনা উচিত।

শিবকুমার বলেন, অভিবাসী কর্মীদের মধ্যে সবচেয়ে বাংলাদেশি কর্মীদের চাহিদা বেশি মালয়েশিয়ায়, আর তারাই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বেশি।

মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশনের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দেওয়া তথ্যমতে, ৬ জুলাই পর্যন্ত বাংলাদেশ হাইকমিশন ৪ লাখ ২৩ হাজার ৫৬৯ জন কর্মীর চাহিদাপত্র সত্যায়ন সম্পন্ন করেছে। এর মধ্যে প্রায় ৩ লক্ষাধিক বাংলাদেশি কর্মী মালয়েশিয়া এসে পৌঁছেছে এবং বাকি কর্মী মালয়েশিয়া আসার জন্য প্রক্রিয়াধীন ও অপেক্ষমাণ রয়েছে। যারা মালয়েশিয়ায় এসে পৌঁছেছেন, তাদের মধ্যে অনেকেই কাজ পাচ্ছেন না। মাসের পর মাস তাদের হোস্টেলে রাখা হয়েছে এমন অভিযোগও পাওয়া যাচ্ছে। কাজ না পেয়ে বাংলাদেশি কর্মীরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, অনেক নিয়োগকর্তা তাদের সামলানোর চেয়ে বেশি অভিবাসী শ্রমিক নিচ্ছেন। মার্চ মাসে বিদেশি কর্মীদের গ্রহণ এপ্রোভাল বন্ধ হওয়ার আগে, বেশিরভাগ সংস্থাগুলো বিপুলসংখ্যক বিদেশি কর্মীদের অনুরোধ করেছিল এ প্রত্যাশায় যে, তারা যা দাবি করেছিল তার অর্ধেকই পাবে।

শিবকুমার বলেন, যখন সরকার অনুরোধ করা পূর্ণ সংখ্যা অনুমোদন করা শুরু করে, তখন কোম্পানিগুলো নিজেদের অতিরিক্ত শ্রম দিয়ে দেখতে পায় যে তারা কিভাবে ব্যবহার করতে হয় তা জানত না। তাহলে এ নিয়োগকর্তারা আটকে আছে। অতিরিক্ত কর্মীদের নিয়ে তারা কি করবেন তা জানেন না।

প্রগতিশীল মজুরি প্রণোদনা

শিবকুমার প্রগতিশীল মজুরি ব্যবস্থা গ্রহণকারী সংস্থাগুলির জন্য প্রণোদনার কথাও বলেছেন, যেখানে কর্মক্ষমতা এবং উদ্যোগের ভিত্তিতে কর্মীদের পুরস্কৃত করা হয়। ন্যূনতম মজুরি সবার জন্য বাধ্যতামূলক থাকবে, যখন প্রগতিশীল মডেল বেছে নেবে তারা সরকারের কাছ থেকে প্রণোদনা পাবে।

অভ্যন্তরীণ প্রশিক্ষণের জন্য প্রণোদনা

দক্ষতা-ম্যাচিং প্রশিক্ষণের ওপর জোর দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে দেশটির মন্ত্রী শিবকুমার বলেন, শিগগিরই একটি একাডেমি-ইন-ইন্ডাস্ট্রি প্রোগ্রাম চালু করা হবে। শ্রমিকরা বাণিজ্যিক কোম্পানিতে অভ্যন্তরীণ প্রশিক্ষণ পাবে, সরকার তাদের মূল বেতনের শীর্ষে কোম্পানিতে তাদের ১৮ মাস থাকার সময় দেড় হাজার রিঙ্গিত ভাতা প্রদান করবে। তাদের হোস্টিং এবং প্রশিক্ষণ দেওয়া সংস্থাগুলোও নগদ প্রণোদনা পাবে। এমনটি জানিয়েছেন মানবসম্পদ মন্ত্রী ভি শিবকুমার।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category