• শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:১১ পূর্বাহ্ন

৫, ৪, ৩ লাখ করে টাকা নিয়েছেন চাকরি দেওয়ার কথা বলে

Reporter Name / ১০৭ Time View
Update : শনিবার, ৮ জুলাই, ২০২৩

সরকারি–বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে মানুষের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম আবদুল ছালাম হাওলাদার।চট্টগ্রাম নগরের ইপিজেড এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম) নুরুল আবছার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, গ্রেপ্তার আবদুল ছালাম নিজেকে আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) সাংগঠনিক সম্পাদক পরিচয় দেন। সরকারি–বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে তাঁর পরিচিত লোক আছে। তাঁদের মাধ্যমে চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে পারবেন বলে মানুষকে মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। এক ভুক্তভোগী র‍্যাবের কাছে অভিযোগ দেওয়ার পর অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‍্যাব কর্মকর্তা নুরুল আবছার আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বিভিন্ন সময়ে মানুষের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন ছালাম। তাঁর আরও কয়েকজন সহযোগী রয়েছে। তাঁদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ভুক্তভোগী আবদুল হালিম বলেন, ছালামের বড় ভাই আল আমিনের সঙ্গে ইপিজেডের একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন তিনি। সেই সুবাদে ছালামের সঙ্গে পরিচয় হয়। নিজেকে আসক ফাউন্ডেশনের সাংগঠনিক সম্পাদক পরিচয় দিয়ে একটি ভিজিটিং কার্ড দেন তিনি। একই সঙ্গে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে তাঁর পরিচিত লোকজন আছে বলে জানান। বলেন, তাঁদের মাধ্যমে চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে পারবেন। তখন আবদুল হালিম বলেন, তাঁর ১৯ বছরের একটি ছেলে আছে, কিন্তু তাঁর এসএসসি পাসের সনদ নেই। ছালাম তখন সনদ ছাড়া চাকরির ব্যবস্থা করতে পারবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

আবদুল হালিম আরও বলেন, ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ছেলেকে চতুর্থ শ্রেণির সরকারি চাকরি দেওয়ার জন্য গত বছরের জুলাই মাসে ছালামকে প্রথমে এক লাখ টাকা দেওয়া হয়। পরে বিভিন্ন সময় সর্বমোট ৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা দেওয়া হয় তাঁকে। গত বছরের নভেম্বরে চাকরি চূড়ান্ত করার কথা বলে হালিম ও তাঁর ছেলেকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। বিমানবন্দরের পাশে একটি হোটেলে ১৭ দিন রাখা হয় তাঁদের। কিন্তু ছালামের খোঁজ না পেয়ে তাঁরা চট্টগ্রাম চলে আসেন।

র‍্যাব কর্মকর্তা নুরুল আবছার বলেন, আবদুল হালিম ছাড়াও ইপিজেডের মো. রাসেল আহমেদকে ইউএস বাংলা এয়ারলাইনসে প্রটোকল অফিসার পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা, চাঁদপুরের আক্তার হোসেনকে ঢাকা বিমানবন্দরে প্রটোকল অফিসার পদে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে ৪ লাখ টাকা নেন আবদুল ছালাম।

প্রতারণার ঘটনায় ভুক্তভোগী আবদুল হালিম বাদী হয়ে ইপিজেড থানায় মামলা করেছেন। সেই মামলায় গ্রেপ্তার ছালামকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category