• বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪৭ পূর্বাহ্ন

নেতানিয়াহু সৌদির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক চান

Reporter Name / ১৫০ Time View
Update : বুধবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২৩

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু দাবি করেছেন, সৌদির সঙ্গে যদি ইসরাইলের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন হয়, তাহলে আরব-ইসরাইল দ্বন্দ্ব বন্ধ হওয়ার পথ সুগম হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রণেতা লিন্ডসলে গ্রাহামের সঙ্গে জেরুজালেমে সোমবার বৈঠক করেন নেতানিয়াহু। সেখানে তিনি সৌদির সঙ্গে ইসরাইলের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের আগ্রহের কথা জানান।

তিনি লিন্ডসলে গ্রাহামকে বলেন, ‘আমরা সৌদি আরবের সঙ্গে শান্তি ও কূটনৈতিক সম্পর্ক চাই। ইসরাইল-আরব দ্বন্দ্ব বন্ধ হওয়ার ক্ষেত্রে এটিকে আমরা বড় ধাপ হিসেবে দেখি।’

নেতানিয়াহু আরও দাবি করেন, ইসরাইল-সৌদি সম্পর্ক বিশ্ব, আরব অঞ্চলসহ সবার জন্য একটি ভালো ও ঐতিহাসিক মুহূর্ত হবে।

২০২২ সালে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সহায়তায় আব্রাহাম চুক্তির মাধ্যমে আরব বিশ্বের কয়েকটি দেশ ইসরাইলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করে। তবে ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধান লক্ষ্য ছিল—  সৌদি আরবের সঙ্গে এক হওয়া।

ওই সময় সৌদি জানায়, যদি ইসরাইল তাদের স্বীকৃতি চায় তাহলে আগে ফিলিস্তিন সমস্যার সমাধান করতে হবে।

এদিকে গত মাসে ইসরাইলের চরম শত্রু ইরানের সঙ্গে আবারও কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ঘোষণা দেয় সৌদি আরব। চীনের মধ্যস্থতায় দীর্ঘ ৭ বছর পর আবার এ দু’টি মুসলিম দেশ এক হওয়ার ঘোষণা দেয়। এ বিষয়টি নেতানিয়াহুর জন্য বড় একটি ধাক্কা হয়ে আসে।

ইরান-সৌদি আবারও এক হওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর মধ্যপ্রাচ্যে দ্রুত সময়ের মধ্যে স্থিতিশীলতা ফিরে আসার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি দেশ একে-অপরের সঙ্গে আবারও কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category